ঢাকা শনিবার, ১৫ জুন, ২০২৪

পাপনের চোখে বিশ্বকাপে বাংলাদেশের একাদশ

বার্তাজগৎ২৪ ডেস্ক

প্রকাশিত: মে ১৮, ২০২৪

পাপনের চোখে বিশ্বকাপে বাংলাদেশের একাদশ

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে বাংলাদেশের একাদশে কাকে কাকে দেখতে চান? কেমন হতে পারে আপনার একাদশ? ইতিমধ্যে হয়তো অনেক বাংলাদেশের ক্রিকেটপ্রেমী একাদশও সাজিয়ে ফেলেছেন। বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের সভাপতি ও ক্রীড়ামন্ত্রী নাজমুল হাসান পাপনও একাদশ সাজিয়ে ফেলেছেন। আজ সাংবাদিকদের সামনে নিজের পছন্দের একাদশও জানিয়েছেন তিনি।

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ খেলতে ১৫ সদস্যের দল নিয়ে এখন যুক্তরাষ্ট্রে আছে বাংলাদেশ দল। ৮ জুন ডালাসে ‘ডি’ গ্রুপে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে বিশ্বকাপ অভিযান শুরু করবেন নাজমুল হোসেন শান্তরা। বিশ্বকাপে বাংলাদেশকে নিয়ে আশাবাদী পাপন। ক্রিকেটপ্রেমী হিসেবে তিনি চান, বাংলাদেশ সব ম্যাচে জিতুক। আর বিসিবি সভাপতি হিসেবে চাওয়া, দল ভালো খেলুক।

এ নিয়ে পাপন বলেছেন, ‘ক্রিকেটপ্রেমী হিসেবে আশা করি, বাংলাদেশ সব ম্যাচ জিতুক। আর বিসিবি প্রেসিডেন্ট হিসেবে আশা করি, ভালো খেলুক। দুইটা দুই জিনিস। ফরম্যাটটা পুরোপুরি ভিন্ন। টেস্টে বা ওয়ানডেতে—আপনি যদি একটি ভুল করে ফেলেন, ওইটাকে শোধরানোর একটা সুযোগ থাকে। টি-টোয়েন্টিতে কোনো সুযোগ নেই। একটা গেল তো গেলই, সময়টা এত কম। আমাদের এখানে খেলোয়াড়দের নিয়ে কোনো সন্দেহ নেই। যারা গেছে তারা বেস্ট। হতে পারে, কাছাকাছি আরেকজন আছে—সেটা বলতে পারেন। কিন্তু তাই বলে এখানে ভালো খেলোয়াড় রেখে তুলনামূলকভাবে খারাপ খেলোয়াড় পাঠিয়েছি, সেটা বলতে পারবে না। এখানে সবাই পারফরমার। হ্যাঁ, অনেকের ফর্ম নেই, এটা একটা সমস্যা।’

এরপরই একাদশে কে কে খেলবেন—সেটি নিয়ে পাপন বলেন, ‘আমাকে যদি জিজ্ঞেস করেন, ওপেনিংয়ে তিনজনের মধ্যে কোন তিনজন খেলবে এটা আমি বলতে পারছি না এখন। তবে এই তিনজনের মধ্যে দুজন খেলবে। তিনে শান্ত, চারে সাকিব, পাঁচে তাওহীদ হৃদয়…না…চারে তাওহীদ হৃদয়, পাঁচে সাকিব, ছয়ে মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ, সাতে অনিক…যদি আমরা এই কজন ব্যাটার খেলায়। তারপরে একজন স্পিনার আসবে। রিশাদ আসবে নাকি শেখ মাহেদী আসবে সেটা আমি জানি না। এরপর তিন পেসার খেলবে, এটা হলো স্ট্যান্ডার্ড। এখন এর মাঝে পরিবর্তনের সম্ভাবনা খুবই ক্ষীণ বলে আমার মনে হয়।’

সাম্প্রতি সময়ে লিটন দাসের ফর্ম নিয়ে বেশ কথাবার্তা হচ্ছে। তবে তাঁর জন্য দোয়ায় করছেন পাপন, ‘এক বছর আগেও যদি আমি যদি কাউকে জিজ্ঞেস করতাম, তামিম ছাড়া আমাদের সেরা ওপেনার কে? সবাই বলত—লিটন দাস। কিন্তু লিটন এখন ফর্মে নেই। খালি দোয়া করতে পারি যে, সে যেন ফর্মে ফিরে। শান্ত বলেন, তাওহীদ হৃদয় বলেন, অনিক বলেন—ওদের এ পর্যন্ত যে কয়েকটা খেলা দেখেছি, তারা সবাই সম্ভাবনাময়ী। আর থাকে সাকিব আর মাহমুদউল্লাহ...এরপর তো আর কথায় নেই। তাহলে বাকি থাকে হলো আরেকটা ওপেনার। আমাকে যদি জিজ্ঞেস করেন, তানজিদ তামিম? ও টি-টোয়েন্টিতে অসম্ভব ভালো খেলছে। যে অ্যাপ্রোচ ও সাহসিকতা দরকার, এটা ওর মধ্যে আছে। ও যদি সুযোগ পায় আগামী এক-দেড় বছরের মধ্যে ও আমাদের একজন ভালো ওপেনার হতে পারে।’

‘সৌম্য সরকারও আছে ওখানটায়। আমরা জানি, সৌম্য যেদিন খেলে সেদিন দলের অর্ধেক কাজ করে ফেলতে পারে। তবে ধারাবাহিকতার একটা সমস্যা আছে আমাদের। ওপেনিং পজিশন ছাড়া আমি মনে করি না, আমাদের কোনো দ্বিধা নেই, এখানটায় কারা খেলতে পারে। পেসারের যদি কথা বলেন, ফিট থাকলে তাসকিন, শরীফুল ও মোস্তাফিজ—এই তিনজন খেলবে। অন্য কারও ঢোকার কোনো সুযোগই নেই।’, যোগ করেন বিসিবি সভাপতি।

বার্তাজগৎ২৪

Link copied!