ঢাকা সোমবার, ১৫ এপ্রিল, ২০২৪
চট্টগ্রাম টেস্ট চতুর্থ দিন

সবার জানা কথাটাই বললেন মুমিনুল

বার্তাজগৎ২৪ ডেস্ক

প্রকাশিত: এপ্রিল ২, ২০২৪

সবার জানা কথাটাই বললেন মুমিনুল

সিলেট টেস্টের মতো বাংলাদেশ-শ্রীলঙ্কা দ্বিতীয় টেস্টের ফলও আসতে পারত চার দিনে। হুড়মুড়িয়ে যেভাবে বাংলাদেশের ব্যাটিং লাইন আপ ভেঙে পড়ছে, চট্টগ্রামে তেমনটা হলেও অবাক হওয়ার কিছুই থাকত না। তবে শেষ পর্যন্ত সিরিজের শেষ টেস্টটা গড়িয়েছে পঞ্চম দিনে। ম্যাচ শেষ দিনে গড়ালেও ব্যাটারদের ব্যর্থতা নিয়ে মুমিনুল হক মুখ খুলেছেন।

২০২৩-২৫ টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ চক্রে বাংলাদেশ প্রথম ম্যাচ খেলে গত বছরের নিউজিল্যান্ড সিরিজ থেকে। নিউজিল্যান্ড, শ্রীলঙ্কা—দুই দলের বিপক্ষেই সিরিজের দুটি করে টেস্টের সব টেস্টই বাংলাদেশ খেলেছে ঘরের মাঠে। একমাত্র কিউইদের বিপক্ষে সিরিজের প্রথম টেস্টের দুই ইনিংসেই বাংলাদেশ ৩০০ পেরিয়েছে। তারপর টানা পাঁচ ইনিংসে ২০০ এর আগেই গুটিয়ে যায় নাজমুল হোসেন শান্ত, লিটন দাসের বাংলাদেশ। বোঝাই যাচ্ছে বাংলাদেশের ব্যাটাররা ধারাবাহিকভাবে ব্যর্থতার পরিচয় দিচ্ছেন।

ইনিংসের পর ইনিংস ব্যর্থ বাংলাদেশ অবশেষে চট্টগ্রামে ২০০ পেরোনো ইনিংস খেলতে পেরেছে। ৫১১ রানের লক্ষ্যে নামা বাংলাদেশ আজ চতুর্থ দিনের খেলা শেষ করেছে ৭ উইকেটে ২৬৮ রানে। দিনের খেলা শেষে মুমিনুল যখন সংবাদ সম্মেলনে আসেন, তখন ব্যাটিং ব্যর্থতার প্রশ্ন এসেছে তাঁর কাছে। ঘরোয়া ক্রিকেটে চার দিনের ম্যাচ খেললে বাংলাদেশের ব্যাটারদের উন্নতি হতো কি না, তখন মুমিনুলের পাল্টা প্রশ্ন, আমাদের প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটের খেলার মান আর আন্তর্জাতিকের খেলার মান একই কিনা?’ বাংলাদেশের বাঁহাতি ব্যাটার নিজেই তারপর উত্তর দিলেন, ‘আমার কাছে মনে হয় যে, শুনতেও খারাপ লাগতে পারে আমাদের ঘরোয়া ক্রিকেটের খেলা এবং আন্তর্জাতিকের খেলা অনেক ভিন্ন ভাই। আকাশ পাতাল তফাত ভাই। আপনারাও জানেন আমিও জানি সবাই জানে। আমি নিজেও তো জাতীয় লিগ খেলি। নিজে কখনো চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা করি না। এখানে আন্তর্জাতিকে যেমন চাপ মোকাবেলা করতে হয়। সততার সঙ্গে কথাগুলো বলছি।’

টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের প্রথম দুই চক্রে বাংলাদেশ দুইবারই জিতেছে ১টি করে ম্যাচ। এবারও বাংলাদেশ এক ম্যাচ জিতেছে চার ম্যাচ খেলে। সামনে বাংলাদেশের খেলতে হবে ভারত-পাকিস্তানের মাঠে অ্যাওয়ে টেস্ট সিরিজ। ভারত-পাকিস্তানে সেই ‘চ্যালেঞ্জিং’ সিরিজগুলো বাংলাদেশ খেলবে এই বছরের আগস্ট-সেপ্টেম্বরে। ভবিষ্যৎ টেস্ট সিরিজের পরিকল্পনা নিয়ে মুমিনুল বললেন, ‘সবাই করবে। অবশ্যই চিন্তা করবে। এই বছরে ওয়ানডেতে সাদা বলের খেলা কম, টেস্ট বেশি। তাই লাল বলের চিন্তা বেশি করবে।’

বার্তাজগৎ২৪

Link copied!